কপালের বলিরেখা দূর করার উপায় | বয়সের ছাপ কমানোর 4 টি টিপস Apply Now

কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়
Spread the love On Social Media

বয়স মাত্র ১৮, এখনই কপালে ভাঁজ দেখা যাচ্ছে। বয়স ২৫, চোখের চারপাশে, নাকে দুপাশে বলি পড়া দেখা যাচ্ছে। আপনারা কি জানেন এই সমস্যা গুলির সমাধান কিন্তু খুব একটা জটিল কিছু নয়। ৪টি সাধারণ টিপস (কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়) ধৈর্য ধরে নিয়মিত ভাবে অনুসরণ করলেই আপনার সমস্যা গুলির প্রতিরোধ এবং প্রতিকার করা সম্ভব? কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়

কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়
কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়

এই টিপস গুলি যে কোনো ধরনের নারী পুরুষ অনুসরণ করতে পারেন এবং ধৈর্য ধরে অনুসরণ করলে উপকারিতা পাবেন।

পরিষ্কার রাখা (কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়)

আমরা যখন বাইরে যাই কিংবা ঘরে রান্না করি সকল ধুলো ময়লা ঘাম এই সব কিছু আমাদের শরীরে সব থেকে যে অংশে বেশি পরিমাণ জমা হয় তাহলে আমাদের মুখ, বিষাক্ত উপাদান ধুলোবালি ঘাম আমাদের মুখের ত্বকে অনেক পরিমাণ ফ্রি রেডিক্যাল উৎপন্ন করে। যাকে বলে ফ্রী রেডিক্যাল ড্যামেজ। ঠিক এই কারণেই আমাদের শরীরের সমস্ত জায়গার মধ্যে যে জায়গায় আগে বয়সের ছাপ (বয়সের ছাপ দূর করার ঘরোয়া উপায়) দেখা যায় দেখা যায় তা হল আমাদের মুখ।

মুখের চামড়া টানটান করার উপায় | কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়

আপনি যেই বয়সি হয়ে থাকেন না কেন প্রতিদিন নিয়ম করে আপনাকে যে অভ্যাসটি গড়ে তুলতে হবে সেটি হলো প্রতিদিন রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে একটি ভালো মানের ফেসওয়াশ দিয়ে মুখটি পরিষ্কার করা। যে কোনো ভালো ফেসওয়াশ হলেই হবে, শুধু দেখতে হবে ফেসওয়াস টা যেন বেশি ক্ষার না হয়, তবে ফেসওয়াশের সাথে স্ক্রাব ব্যাবহার করবেন না।

হাইড্রেশন 

আপনার বয়স যদি ৩০ এর নিচে হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য সবথেকে ভালো উপকরণ হলো হাইড্রেশন। যদি বয়স ৩০ হয় সাথে সাথে আপনার কপালে ভাঁজ হতে দেখা যেতে পারে, নাকের পাশে বলি পড়ে গেছে, চোখের পাশের চামড়া কুঁচকে গেছে তাহলে আপনার ত্বক হাইড্রেশন ধরে রাখতে পারছে না। হাইড্রেশন আমাদের স্কিনের তারুণ্য ধরে রাখার জন্য অনেক জরুরী।

নিচে দুটি পদ্ধতি দেওয়া হল simple anti aging routine

শরীরের ভেতর থেকে যেন আমাদের জলের অভাব না হয় সেই জন্য প্রচুর পরিমাণে ফল এবং শাকসবজি  খাওয়ার সাথে সাথে জলও পান করতে হবে। শরীরের বাইরে থেকে হাইড্রেশন যোগানোর জন্য আমাদের ব্যবহার করতে হবে একটি হাইড্রেটিং টোনার এবং যাদের শুষ্ক ত্বক তারা এমন একটি টোনার বেছে নেবেন যেটি হাইড্রোজেন এর সাথে সাথে ত্বকের ময়েশ্চারাইজার ধরে রাখতে সাহায্য করে। যেমন I’m from rice tonar যার মধ্যে আছে 77.78% rice নিষ্কর্ষ, যাদের ত্বক শুষ্ক বা কম্বিনেশন বা নর্মাল তারা এই দব্য ব্যবহার করে খুবই আরাম পাবেন।

কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়

যদি আপনার ত্বক তৈলাক্ত হয়ে থাকে তাহলে আপনি খুবই নরমাল একটি হালকা ধরনের হাইড্রেটিং টোনার ব্যবহার করতে পারেন। যেমন Beauty Of Joseon ginseng essence water যার মধ্যে আছে 80% ginseng water যাদের Oily ত্বকতারা এটি ব্যবহার করে খুবই আরাম পাবে।

ত্বকের মশ্চারাইজার ধরে রাখা (কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়)

আমাদের মুখের ত্বকের শরীর থেকে জলের অভাব দূর করা এবং সেই জল ধরে রাখার জন্য কিছু প্রাকৃতিক উপাদান থাকে। তাহলে তার পরেও কেন ত্বক জলের অভাব দেখা যায়? কারণ হলো বাইরে ধুলো, ধোঁয়া, শুষ্ক বায়ু দূষণ এইসবের কারণে আমাদের ত্বকের ওপরে যে ব্যারিয়াল থাকে সেটি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এর ফলে ত্বকের ভেতরের জল খুব দ্রুত বাষ্পীভূত হয়ে আমাদের শরীর থেকে বেরিয়ে যেতে থাকে। তার জন্য আমাদেরকে একটা ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে যাতে আমাদের ত্বক সুন্দর দেখায় এবং নরম বা পরিষ্কার দেখায়।

সূর্যের থেকে সুরক্ষা | কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়

আপনি যাই কিছুই দ্রব্য ব্যবহার করেন না কেন আপনি আপনার দ্রব্যের তালিকায় এই জিনিসটি না রাখেন তাহলে আপনার কিছুই লাভ হবে না। সেটি হল সানস্ক্রিন।

সানস্ক্রিনে সবথেকে ভালো সুরক্ষা হল শারীরিক ভাবে সুরক্ষা এবং কেমিক্যালভাবে সুরক্ষা দুই ধরনের সুরক্ষাকেই গ্রহণ করা। ছাতা, স্ক্র্যাব, সানগ্লাস অবশ্যই ব্যবহার করবেন এবং সব থেকে যেটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সেটি হল বাইরে বেরোনোর আগে সানস্ক্রিন অবশ্যই ব্যবহার করবেন। এটি আপনার স্ক্রিনের জন্য খুবই উপকারী সূর্যের তাপ থেকে রক্ষা করে।

খুবই চমৎকার একটি সানস্ক্রিন আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব যেমন হল skin 1004 Madagascar hyalu-cica water-fit sun serum SPF50 এ ধরনের সানস্ক্রিন খুব ভালো কিন্তু পাওয়াটা খুব কষ্টকর ব্যাপার।

Conclusion

ত্বকের ভাঁজ, বলি রেখা বা বয়সে ছাপকে এগুলো কোন রকম খুঁত হিসাবে নেবেন না। ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তেই পারে, বলি রেখা হতেই পারে সে গুলো কোন বিষয়টাকে দোষ হিসাবে দেখবেন না এর জন্য আগের বলা পদ্ধ তিগুলি ব্যবহার করুন অনুসরণ করে চলুন। 

আপনার এই এই অসুবিধা গুলি কিছু বছর পরেও হতে পারে যেই বয়সে যেটা হবার নয়, সেই বয়সে যদি বয়সের ছাপ কি বলি দেখা বা ত্বকে ভাজ দেখা যায় তাহলে সেটা ভালো দেখতে লাগবে না তার জন্যই এই জিনিস গুলো অনুসরণ করে চলুন। তাহলে আপনার আপনার ত্বক সুন্দর হয়ে উঠবে এবং বয়সে আগে কখনো কিছু অসুবিধা হবে না। এই টিপস গুলি অনুসরণ করে চলুন সুস্থ থাকুন নিজের ত্বকের যত্ন নিন ত্বকের যত্নের সাথে সাথে শরীরের ভেতরের ত্বকের যত্ন নিন বেশি করে জল পান করুন নিজের ত্বকে আরো সুন্দর করে তুলুন।

সুস্থ্য থাকুন নিজের ত্বকের যত্ন নিন।

আরো পড়ুন : তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন | Skin care for oily skin

বিঃদ্রঃ– উপরের তথ্যগুলো (কপালের বলিরেখা দূর করার উপায়) কেবলমাত্র ত্বক কে ভালো রাখার উদ্দেশ্য। rupcharcha.in শুধুমাত্র বিভিন্ন ন্যাচারাল স্কিন কেয়ার এর খবর ইত্যাদি বিষয়ে আপডেট দেওয়ার জন্যই তৈরি করা। এটা কোন সংস্থা নয় এবং পরিচালনা করে না। এটা সমগ্র ইন্টারনেট জুড়ে খবর সংগ্রহ করে প্রকাশিত করে। rupcharcha.in সর্বদা চেষ্টা করে নির্ভুল আপডেট প্রকাশ করার তবুও আমাদের অবচেতন মনে যদি কোন ভুল হয়ে যায় তাহলে ভুলের জন্য আমরা দায়ী নই।

পাঠকদের অনুরোধ করা হচ্ছে আপনারা অতি অবশ্যই নোটিফিকেশন নিজে থেকে ভালো করে যাচাই করবেন, দেখবেন, বুঝবেন তবেই নিজের দায়িত্ব করবেন।

Author

  • Srijita Chakraborty

    Our mission at রুপচর্চা is to enhance your life with the essence of beauty, the knowledge of health care, and the excitement of the newest trends.

    View all posts

Spread the love On Social Media

One thought on “কপালের বলিরেখা দূর করার উপায় | বয়সের ছাপ কমানোর 4 টি টিপস Apply Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Top